menstryal hygiene day

Menstrual Hygiene Day 2021 in Bengali | MHD 2021 | ঋতু স্বাস্থ্যবিধি দিবস 2021

আজ ঋতু স্বাস্থ্যবিধি দিবস(Menstrual hygiene day 2021)। স্বাস্থ্যসচেতন ভারতীয় নারী বহু দূর পথ অতিক্রম করে 2021 এসে দাঁড়িয়েছে। সচেতনতার ছোট চারা গাছ আজ মহীরুহে পরিণত। বর্তমান সোশ্যাল মিডিয়া বলুন বা টেলিভিশন বা অন্য কোনো প্ল্যাটফর্ম মহিলা স্বাস্থ্যবিধির প্রচার বর্তমান নারীকে করেছে সচেতনতর।

প্রকৃতপক্ষে বর্তমানে ঋতুমতী নারী আজ গৃহবন্দি থাকার বা অশুচি থাকার মানসিকতা রাখে না। বেরিয়ে এসেছে খোলা আকাশের নিচে। সুস্থ স্বাভাবিক জীবনযাপনের অঙ্গীকারে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

কিন্তু ‘তবুও’ বা ‘কিন্তু -র’ মত অব্যয় বর্তমানে ব্যবহার করা অমূলক নয়। কেননা শহরব, আধা শহর-নগরে নারীদের মধ্যে যে সচেতনতা, তার তুলনায় এখনো গ্রামবাংলা অনেকখানি পিছিয়ে। এখনো গ্রাম বাংলার নারীর লজ্জা, অশুচিতা অস্পৃশ্যতা শরীর ও মনে অনেকখানি জায়গা জুড়ে অবস্থান করছে। স্বাভাবিক জীবন, কাজকর্ম আর অস্পৃশ্যতার সংঘাতের মধ্যে বিদ্যমান। জানি না কবে এই ধারাবাহিক রীতির অবসান ঘটবে।

চলুন দেখি আজকের এই Menstrual Hygiene Day- 2021 প্রেক্ষিত। কিভাবে এই দিনটি ক্যালেন্ডারে বিশেষ দিন হিসেবে জায়গা করল, তার সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত।

How Menstrual Hygiene Day-

Menstrual Hygiene Day-র প্রাথমিক উদ্যোগ নেয় একটি জার্মান এনজিও। নাম হল WASH United. এর সম্পূর্ণ নাম হল WAter Sanitation and Hygiene. প্রকৃতপক্ষে অনুন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলোতে Menstrual Hygiene সচেতনতা গড়ে তোলার জন্য এই এনজিওটি উদ্যোগ নেয়।

Menstrual Hygiene Day নিয়ে সূচনার শুরু হয় 2012 সাল থেকে। পরের বছর অর্থাৎ 2013 সালে WASH United 28 দিন ধরে একটি ক্যাম্পেন চালায় সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে

 বিশেষত টুইটারের মাধ্যমে। ক্যাম্পেইনটি নাম দেয় ‘May #MENSTRAVAGENZA’. সারা বিশ্বই এই ক্যাম্পেইনে বিশেষ ভাবে সারা দেয়

পরের বছর 2014 সালে মিছিল, প্রদর্শনী, ছায়াছবি, ওয়াকসপ এবং বক্তৃতার মাধ্যমে Menstrual hygiene সাংগঠনিকভাবে এবং জোরালো অভিযান শুরু হয়।

সারা পৃথিবীর উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলি থেকে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যায়। যেহেতু Menstrual হল একটি চক্রাকারে প্রতিমাসে আবর্তিত হয় ও এই আবর্তনেরসময়সীমা 28 দিন। সে জন্য 28 তারিখটিকে Menstrual Hygiene Day হিসেবে নির্দিষ্ট করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক স্তর থেকেও এই তারিখটি Menstrual Hygiene Day হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে। সে হিসেবে আজই-

menstrual Hygiene Day 2021 | ঋতু স্বাস্থ্যবিধি দিবস 2021

Why Menstrual Hygiene Day?

Period বা Menstruation একটি স্বাভাবিক শারীরবৃত্তীয় প্রাকৃতিক ঘটনা। প্রতিটি নারীর সম্পূর্ণ নারী হয়ে ওঠা শারীরবৃত্তীয় কার্যাবলী একটি গুরুত্বপূর্ণ পদ্ধতি হলো Period/ Menstruation. বাংলায় যাকে বলে ঋতুচক্র

ঋতুচক্র কি? কাকে বলে? কেন ঋতুচক্র হয়? এ নিয়ে সকলে অবগত। কিন্তু এ নিয়ে যে ভ্রম, এর ফলে যে সামাজিক প্রতিবন্ধকতা, মানসিক হিনমন্যতা থেকে যার উদ্ভব এ নিয়ে আজকের এই সামান্য অনুভূতি।

1. সামাজিক প্রতিবন্ধকতা- 

মানসিক হীনমন্যতা থেকে সামাজিক প্রতিবন্ধকতার কারণে সংগঠিত এখনো ঋতুবতী মহিলাকে যে অস্পৃশ্যতার শিকার হতে হয়, তারই সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য আজকের দিনের উৎপত্তি। Menstrual পদ্ধতি কি?, কেন কিভাবে সংঘটিত হয়?- তাই বোঝানো বা সচেতনতা বৃদ্ধি করাই হলো এই দিনটির উদ্ভব। বিশেষ করে সাধারণ মহিলাসমাজ ঋতু বা পিড়িয়ড হয় জানে, কিন্তু পিরিয়ড কেন হয কিভাবে এই ধারাবাহিক শারীরবৃত্তীয় পদ্ধতি শরীরে স্বাভাবিক নিয়মে প্রতিমাসে ফিরে ফিরে আসে তা অনেক মহিলা এখনো জানেন না- এ সত্য। এ সত্যটি ব্যাখ্যার কারণে Menstrual Hygiene Day- কে বিশেষভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়।

সামাজিক প্রতিবন্ধকতা একজন মহিলাকে তার স্বাভাবিক কাজকর্ম থেকে বঞ্চিত না করার সংকল্প গ্রহণ করার নিমিত্তে আজকের দিনটির উদ্ভব।

খেলাধুলা, বাড়ির কাজকর্ম, পূজাপাঠ, হাট-বাজার ইত্যাদি কাজকর্ম menstrual situation তে স্বাভাবিক সেটা বোঝানো।

2.স্বাস্থ্যসম্মতভাবে উপযুক্ত উপকরণ ব্যবহার-

স্বাস্থ্যসম্মতভাবে উপযুক্ত প্যাড ব্যবহারের দিকেও নজর দেবার নিমিত্ত এই দিনটির গুরুত্ব রয়েছে। গ্রাম বাংলার এখনও দেখা যায় বিশেষ করে মা কাকিমারা এখনো কিন্তু ছেড়া ন্যাকড়া ব্যাবহার করেন। কিন্তু এ ধরনের কাপড়ে শরীরে কত ধরনের জীবাণু আসতে পারে তার ধারণা তাদের নেই। স্বাস্থ্যবিধি মেনে Pad ব্যবহার করা যে কত নিরাপদ ও বিভিন্ন সংক্রমণ থেকে তাদেরকে রক্ষা করে তার সচেতনতা বৃদ্ধি করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় Menstrual Hygiene Day।

3. পুরুষদেরকেও এই সচেতনতায় সামিল করা-

পৃথিবীতে নর নারী সমানভাবে যে কোন যজ্ঞে সামিল। এখন গ্রুপে কোন পুরুষ বা একক ভাবে কোন নারী কোন অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে পারে না। ঋতু বা Menstruation যে স্বাভাবিক ঘটনা তা অনেক পুরুষ মেনে নিতে পারেন না। ঋতুমতী মহিলাকে এখনো অনেক পুরুষ অচ্ছুত বা অস্পৃশ্য নজরে দেখাটাও অস্বাভাবিক কিছু নয়। এ অবস্থায় তাদের প্রতি তাচ্ছিল্য বা ঘৃণা হওয়াটাকে অনেক পুরুষের অধিকারের মধ্যে থাকে। এ এক হীনমানসিকতার পরিচয় বহন করে।

Menstruation বা Period শারীরিক প্রক্রিয়ার বিষয়টি স্বাভাবিক অবশ্যম্ভাবী ঘটনাকে পুরুষ সমাজকে সচেতনতার বোধে উন্নীত করাও Menstruation Hygiene Day দিনে আর এক উদ্দেশ্য।

4. এনজিও ও স্বাস্থ্য বিভাগকে আরো সক্রিয় করা-

শুধু একটি দুটি নয় যে এনজিও শিশু নারীদের সামাজিক সমস্যা নিয়ে কাজকর্ম করে তাদেরকে আরও সক্রিয় করার আহ্বানও এই আজকের দিনে করা হয়ে থাকে। এনজিওগুলো যে এ ব্যাপারে তৃণমূল স্তরে কাজকর্ম করে সে সম্পর্কে সামিল হওয়ার আহ্বান জানানোর বিশেষ দিন।

তাছাড়া সরকারি বিভিন্ন স্বাস্থ্য বিভাগ, স্বাস্থ্য বিভাগের অধীনে নারী শিশু কল্যাণ বিভাগ যাতে আরও সক্রিয়ভাবে কর্মসূচি গ্রহণ করে বাস্তবে প্রয়োগ করে, তারও প্রতিশ্রুতি আজকের দিনে গ্রহণ করা হয়।

5. প্রকৃতিবান্ধব প্যাড ব্যবহার করা | Use of eco friendly pad-

বাজারে বিভিন্ন কোম্পানি বিভিন্ন বিভিন্ন নামে Pad নিয়ে এসেছে। বর্তমানে তার সংখ্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু তা কতটা নিরাপদ বা তা কতটা পরিবেশ বান্ধব এ নিয়ে সতর্ক করাও Menstrual Hygiene Day এর অন্যতম প্রতিশ্রুতি।

প্রকৃতি মানুষের বিভিন্ন কাজে আজ রুষ্ট। বিভিন্ন সংস্থা এ ব্যাপারে বেশ সচেতনতন। তাই ইকো ফ্রেন্ডলি হাইজেনিক Pad তৈরি করার পরিকল্পনা অনেক সংস্থা নিয়েছে । এ ধরণের Pad শুধু শরীর নয়, প্রকৃতিতেও সহজে মিশে যায়। এর ফলে দুটো দিক লাভবান হয়- 

  • শারীরিক সংক্রমণ থেকে নিরাপত্তা ও 
  • অন্যদিকে বাস্তু সহায়ক প্রকৃতিবন্ধক দ্রব্যের ব্যবহার্যতা।

এ বিষয়ে সচেতন করা Menstrual Hygiene Day -র সংকল্প নেওয়ার যৌক্তিকতা রয়েছে।

6. হাটে, বাজারে, স্কুল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় Pad ভেন্ডিং মেশিন বসানো-

এনজিও থেকে শুরু করে সরকারিভাবে অনেক স্থানে Pad ভেন্ডিং মেশিন বসানোর প্রস্তাব দেওয়া ও গ্রহণ করা হয়েছে। যাতে স্থানীয় মহিলাদের মধ্যে 24 ঘন্টায় ইমারজেন্সি মধ্যে Pad পৌঁছে দেওয়া যায়। অনেক ক্ষেত্রে সামান্য মূল্যের বিনিময়ে Pad বিতরণ করা হয়। বিশেষ করে গ্রামেগঞ্জে 24 ঘন্টা দোকান খোলা থাকে না। মহিলাদের যাতে কোন অসুবিধা না হয়, তার জন্য বাজারে, মোড়ে Pad ভেন্ডিং মেশিন বসানো হয়।

বর্তমানে স্কুল-কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের Pad Vending মেশিন বসানো হয়েছে। ভবিষ্যতে আরও বসবে এ বিষয়ে আমরা আশাবাদী।

আরো পড়ুন- আমাদের সমাজে নারীদের ভূমিকা

আশার আলো | Light of Hope-

বর্তমানে টিন এজ থেকে মধ্য বয়সী মহিলাদের মধ্যে বেশ সচেতনতা দেখা যায়। বিশেষ করে টিন এজ, 20- 30 মহিলাদের মধ্যে সামাজিক সচেতনতা উত্তরণ দেখে বেশ ভালো লাগে। লজ্জা, ঘৃণা, ভয় দূর করে তারা দোকানে বাজারে Pad ক্রয় এবং ব্যবহারের উপযোগীতা নিয়ে বেশ সজাগ। এ ব্যাপারে দূরদর্শন, সোশ্যাল মিডিয়ার অবদানওবেশ কাজে আসে।

সমাজে উচ্চ স্তরে বসবাসকারী মানুষজন, বিশেষ করে সেলিব্রেটিরা এ ব্যাপারে এগিয়ে এলে সমাজে তৃণমূল স্তরে বসবাসকারী মানুষজন সেগুলো প্রভাব ফেলে বলে আমার মনে হয়।

আগামী দিনে স্বাস্থ্যসম্মত ও সামাজিক সচেতনতা নারী সমাজে আসবে বলে আমরা আশাবাদী। প্রার্থনা করি যেন Menstrual সমস্যা থেকে সংক্রমিত না হয়- এই আশা। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *