janhavi panwar

Janhavi Panwar- the Wonder Girl of India in 21st Century | ভারতের বিস্ময় কন্যা জাহ্নবী পানোয়ার

Janhavi Panwar ভারতের বিস্ময় বালিকা হিসেবে পরিচিত। কতজন জানি তাকে? কেনই বা সে বিস্ময় বালিকা আখ্যায় ভূষিত? তার সম্পর্কে জানবো এই মাধ্যমের সাহায্যে। জানার পর যদি কিছু অনুপ্রেরণা জাগে, ইচ্ছাশক্তির স্বাভাবিক শক্তি বৃদ্ধি হয়, আমাদের সামান্য প্রচেষ্টা সার্থক হয়। 

Who is Janhavi Panwar? |  কে এই জাহ্নবী পানোয়ার? 

জাহ্নবী পানোয়ারের(JANHABI PANWAR) জন্ম 8 নভেম্বর, 2003 সালে শাহরমালপুর গ্রামে, সমলখা, পানিপথ, হরিয়ানায়। তার বাবা একজন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং তার মা একজন গৃহিণী। যদিও তার বাবা একজন শিক্ষক, তিনি ইংরেজিতে খুব একটা পারদর্শী ছিলেন না। তার বাবা জাহ্নবীর ইংরেজি দক্ষতার প্রতি আবেগ দেখে, তাকে ভাষা শিখতে সাহায্য করার জন্য উৎসাহ দেন। যদিও সে মুহুর্তে তাদের দক্ষতা সীমিত ছিল।

প্রাথমিকভাবে, তার বাবা তার ইংরেজি চর্চা করার জন্য তার জন্য BBC  ভিডিও নিয়ে আসেন এবং এটি তাকে ব্রিটিশ উচ্চারণ এবং স্বর শিখতে সাহায্য করে। তিনি তাকে বিভিন্ন ইউকে এবং ইউএস ইংরেজি স্পিকিং কোর্সে ভর্তি করেন এবং ভাষা শিখতে তাকে সাহায্য করার জন্য বিভিন্ন দূতাবাসে যান। কিন্তু সেখানে যেহেতু ভর্তির ন্যূনতম বয়স ছিল 16 বছর, তাই বাবা-মেয়ের একজন ভাষাবিদ রেখা রাজকে খুঁজে পেয়েছিলেন। যিনি তাকে ভাষা শিখতে সাহায্য করেছিলেন।

Why is Janhavi Panwar the Wonder Girl of India? 

কোন একটি কারনের জন্য জাহ্নবী পানোয়ারকে ভারতের বিস্ময় বালিকা হিসাবে ভূষিত করা হয়না। জাহ্নবি পানোয়ারের বহুমুখী প্রতিভা তাকে ভারতীয়দের হৃদয়ে স্থান দিয়েছে। 

1. মাত্র 13 বছর বয়সে বোর্ড পরীক্ষায় পাশ | Passed Board Exam at the age of 13-

জাহ্নবী পানোয়ার মাত্র 8 বছর বয়সেই বোর্ড পরীক্ষায় বসে এবং সাফল্যের সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়। আপনারা বলবেন সেতো অনেকেই এরকম বয়সে বোর্ড পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। তা ঠিক তবে জাহ্ণবীর বিস্ময়ের এখানেই শেষ নয়।

2. 16 বছর বয়সে গ্রাজুয়েশন । Graduated at 13 Years Old-

মাত্র 13 বছর বয়সে জাহ্নবী গ্ৰ্যাজুয়েট ডিগ্ৰী লাভ করেন  দিল্লী ইউনিভার্সিটি থেকে। মে বয়সে মেয়েরা অষ্টম শ্রেণীতে পাঠরত, সেই বয়সে সে ব্যাচেলর ডিগ্রি অর্জন করল। এই প্রতিভাও তাকে আশ্চর্য করেছে।

3. 8 টি স্পোকেন ইংলিশ একসেন্ট | She graved 8 English Accent-

জাহ্নবী এই বয়সেই ইংরেজি ভাষা বলার ক্ষেত্রে আটটির বেশি একসেন্ট আয়ত্ব করে ফেলেছে। ভারতীয়রা ইংরেজি ভাষায় কথা বলতে পারেন অনেকেই। কিন্তু ভারতীয়রা ইংরেজি বলার ক্ষেত্রে যে প্রোনানসিয়েশন ব্যবহার করেন তা অতি সাধারন, সহজ-সরল ভারতীয় উচ্চারণ। জাহ্নবীর ক্ষেত্রে সেটা নয়। এই অল্প বয়সেই সে ব্রিটিশ, আমেরিকান, স্কটিশ, অস্ট্রেলিয়ান ইত্যাদি বিভিন্ন দেশের জনসাধারণ যেভাবে উচ্চারণ করে কথা বলে জাহ্নবী সেই ভাষাগুলি অনায়াসে বলতে পারে।

4. প্রেরণামূলক ভাষণ | Motivational Speech-

জাহ্নবীর বক্তব্য সহজ-সরল হলেও কিশোর-কিশোরী থেকে শুরু করে মধ্যবয়সী এবং বৃদ্ধরাও আশ্চর্য হয়। প্রতিটি মানুষই তার বক্তব্য গভীর মনোযোগ দিয়ে শোনে এবং অনুপ্রাণিত হয়। হীনমন্যতা, নিজের উপর বিশ্বাস, আস্থা আশাভরসা কিভাবে বাড়ানো যায় জাহ্নবী সেই ধরনের প্রেরণামূলক মোটিভেশনাল বক্তব্য দিয়ে থাকে।

5. IAS দেরও প্রেরণা জাহ্নবী আনোয়ার | Inspiration for IAS-

জাহ্নবী সানোয়ার কোন IAS দের প্রেরণা মূলক বক্তব্য পেশ করে- আশ্চর্য হতে হয়। একদল ম্যাচিওর, তরুণ-তরুণী, যুবক-যুবতী যারা IAS এর মত সর্বভারতীয় এক কঠিন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে দেশের হাল ধরার যোগ্যতা অর্জন করেছে। একজন কিশোরী অতি অল্প বয়সেই তাদের প্রেরণা জোগানোর জন্য বক্তব্য রাখে।

বোম্বে ইনস্টিটিউট অফ পাবলিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টরের উপস্থিতিতে 150 জন IAS অফিসারের কাছে পানোয়ার তার প্রথম বক্তৃতা দিয়েছিলেন। জাহ্নবী পানোয়ার ৮টি রাজ্যে ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বক্তৃতা দিয়েছেন

6. সুপার 30 | Super 30-

Super 30 হল একটি প্রোগ্রাম যা আনন্দ কুমার দ্বারা শুরু করা হয়েছিল। যা IIT-JEE-এর প্রবেশিকা পরীক্ষার জন্য সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষিত ও প্রস্তুত করার উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে। প্রতি বছর 30 জন শিক্ষার্থীকে এই প্রোগ্রামের অধীনে ভর্তি করা হয়। শুধুমাত্র তাদের দ্বারা পরিচালিত প্রবেশিকা পরীক্ষার ভিত্তিতে। এই পরীক্ষাটি ক্র্যাক করা এবং সুপার 30 এর অংশ হওয়া সহজ নয়। জাহ্নবী পনোয়ার নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছিলেন যখন তিনি প্রতিষ্ঠাতা নিজেই কোনো পরীক্ষা ছাড়াই নির্বাচিত হন।

সুপার 30-এর প্রতিষ্ঠাতা আনন্দ কুমার এবং জাহ্নবী পানোয়ার দুজনকেই একটি ইভেন্টে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল যেখানে তিনি একজন প্রেরণাদায়ক বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। আনন্দ কুমার জাহ্নবীর উচ্চারণ দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন এবং দক্ষতা তাকে সুপার 30-এর অংশ নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

7. News Anchor of BBC-

এই বয়সেই পানোয়ার BBC নিউজ অ্যাঙ্কার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। তবে কত দিন এখানে কাজ করবে আমাদের জানা নেই। যে কাজ পেতে পরিণত যুবক-যুবতী হিমশিম খেয়ে যায়, এই কঠিন কাজের গুরুভার, দায়িত্ব অতি সহজেই সমাপন করছে। তাই তাকে ভারতের বিস্মিত কন্যা হিসেবে মেনে নিতে আমাদের কোনো অসুবিধা হয় না।

7. An Established Youtuber-

জাহ্নবী পানোয়ার একজন প্রতিষ্ঠাতা ইউটিউবার। দীর্ঘদিন থেকে ইউটিউব চ্যানেল চালিয়ে যাচ্ছে। চ্যানেলটির নাম Janhavi Panwar. এখানে বিভিন্ন ধরনের মোটিভেশনাল ভিডিও এবং স্পোকেন ইংলিশ কিভাবে শেখা যায় তার অতি সহজ সরল ভিডিও উপস্থাপন করে। যে ভিডিওগুলির মাধ্যমে অল্প বয়সীরা তো আছেই, যেকোন বয়সের মানুষেরাও অনুপ্রাণিত হয়।

আরো পড়ুন অন্য লেখা-

জাহ্নবীর নিজের কথা-

“I master 12 foreign accents along with that I speak French, Japanese also. My programme comes on many channels like Tehalka Haryana regional channel, News Nation, Zee Punjabi, India TV, Zee News and special achievement of BBC”(আমি 12টি বিদেশী উচ্চারণ আয়ত্ত করি যার সাথে আমি ফ্রেঞ্চ, জাপানিজও বলি। তেহালকা হরিয়ানা আঞ্চলিক চ্যানেল, নিউজ নেশন, জি পাঞ্জাবি, ইন্ডিয়া টিভি, জি নিউজ এবং বিবিসির বিশেষ অর্জনের মতো অনেক চ্যানেলে আমার অনুষ্ঠান আসে।)(Source- http://wondergirljanhavi.com/)

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা | Future Plan-

ভারতের বিস্মিত কন্যা জাহ্নবী পানোয়ারের ইচ্ছা একজন IAS অফিসার হওয়ার। IAS অফিসার হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ এখন থেকে গ্রহণ করছে। আমরা আশা করব অদূর ভবিষ্যতে একজন সফল এবং কম বয়সী অফিসারকে দেশের সেবায় নিযুক্ত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *